Home | About Us | Porshi Team | Porshi Patrons | Event Announcement | Contact Us
হোমপেজ পুরনো সংখ্যা: সূচীপত্র   ||    ৯ম বর্ষ ২য় সংখ্যা জ্যৈষ্ঠ ১৪১৬ •  9th  year  2nd  issue  May-June  2009 পুরনো সংখ্যা
মূল রচনাবলীঃ গ্লোবাল ওয়ার্মিং ও বাংলা বদ্বীপ
  টিয়ার্স অব নেচার - ৯৩

এবারের প্রচ্ছদে ব্যবহৃত হয়েছে টরন্টো, কানাডা প্রবাসী শিল্পী সৈয়দ ইকবালের চিত্রকর্ম “টিয়ার্স অব নেচার - ৯৩” (প্রকৃতির কান্না - ৯৩)। উল্লেখ্য সম্প্রতি টরন্টোতে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল সৈয়দ ইকবালের ১২তম একক চিত্রপ্রদশর্নী। এর আগে এবছরই জানুয়ারিতে টরন্টোর প্রধান আর্ট ডিস্ট্রিক্ট ইয়র্কভিলে ইকবাল করেছিলেন ১১তম চিত্র প্রদর্শনী ‘ক্লায়েমেট চেঞ্জ’। গ্লোবাল ওয়ার্মিং প্রতিরোধে ২০টি পেইন্টিং সেখানে ছিলো। গ্লোবাল ওয়ার্মিং নিয়ে পৃথিবীর সব সরকারের ঘুমন্ত অবস্থার প্রতিবাদে আঁকা তাঁর ‘টিয়ার্স অব নেচার’ সিরিজের বড়-ছোট পেইন্টিং এখন ১০০ ছাড়িয়ে গেছে। ছড়িয়ে পড়েছে তা বিশ্বময়। এবারের প্রদর্শনীতে এই সিরিজের কাজ ছিলো ৭টি। এবারের প্রচ্ছদে ব্যবহৃত হয়েছে সেগুলোরই একটি -  “টিয়ার্স অব নেচার - ৯৩”।
5029 বার পড়া হয়েছে
 

  অতিথি সম্পাদকদের কথা

আমরা সবাই ভূমন্ডলের বেশ কিছু চরম অবস্থা এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগ উপলদ্ধি করছি। উদাহরণস্বরূপ, এগুলো হলো স্বল্প শীতের মাত্রা ও সংক্ষিপ্ত শীতকাল, শীতকালে নদীতে পানির স্বল্পতা, গ্রীষ্মকালে অতিরিক্ত গরম, অতিবৃষ্টি, শীত বা শীতের শেষে অনাবৃষ্টি বা অতিরিক্ত খরা, বর্ষাকালে প্রকট বন্যা, সমুদ্রপৃষ্ঠের ক্রমাগত উচ্চতা বৃদ্ধি, সমুদ্রের উপকূলবর্তী এলাকার নদ-নদীতে লবণাক্ততা বৃদ্ধি, ঘন ঘন সাইক্লোন ও এগুলোর প্রকটতা, মেরু অঞ্চল ক্রমান্বয়ে বরফমুক্ত হওয়া, পর্বতে ও উঁচু মালভূমিতে হিমবাহের অস্বাভাবিক সংকোচন, ইত্যাদি। ওগুলো আবার বিভিন্নভাবে আমাদের পরিবেশ, জনজীবন, স্বাস্থ্য, কৃষি এবং অর্থনীতির উপর কুপ্রভাব ফেলছে। অনেকের ধারণা এতকিছু হচ্ছে পরিবেশ দূষণ এবং গ্লোবাল ওয়ার্মিং বা বিশ্বের উষ্ণায়নের জন্য।
5442 বার পড়া হয়েছে
 

  বিশ্ব উষ্ণায়ন ও বাংলাদেশ

মূলতঃ শিল্প বিপ্লবের কারণে গত দু’শো বছর ধরে বায়ুতে ক্রমাগত কার্বন-ডাই-অক্সাইড (CO2) ও অন্যান্য উষ্ণতা বৃদ্ধিকারক গ্যাসের পরিমাণ বাড়ার কারণে পৃথিবীর তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাচ্ছে। গত ৭৫০,০০০ বছরের মধ্যে CO2 পরিমাণ এখন সবচেয়ে বেশী এবং বিজ্ঞানীদের কাছে এটা পরিষ্কার যে মনুষ্যজনিত প্রভাব প্রাকৃতিক - শ্লথ ও দীর্ঘকালীন - গরম ও ঠান্ডা হবার প্রক্রিয়াকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে। উষ্ণতা বৃদ্ধিকারক গ্যাসের (গ্রীনহাউজ গ্যাস) মধ্যে শুধু CO2ই পড়ে না, এর মধ্যে আছে মিথেন (CH4), নাইট্রাস অক্সাইড (N2O), ক্লোরোফ্লোরো কার্বন (CFC-12), ইত্যাদি। এই সমস্ত গ্যাস সৌরীয় তাপ, যা কিনা পৃথিবীপৃষ্ঠে প্রতিফলিত হয়ে অবলোহিত তরঙ্গে মহাশূন্যে ফিরে যেত, তাকে শোষণ করে পৃথিবীর তাপমাত্রা বাড়িয়ে দেয়। বর্তমানে গবেষকরা ধীরে ধীরে পৃথিবীর প্রাচীন ইতিহাসে হঠাৎ উষ্ণায়ন প্রক্রিয়ায় প্রাকৃতিক মিথেনের প্রভাব সম্পর্কেও অবহিত হচ্ছেন।
5077 বার পড়া হয়েছে
 

  বাংলাদেশে বিশ্বের উষ্ণায়নের প্রভাব - বাপা’র সাথে আলাপচারিতা

পড়শী’র আমন্ত্রণে ঢাকাস্থ বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা)-এর সাধারণ সম্পাদক ডাঃ মোঃ আব্দুল মতিন খোলামেলা সাক্ষাৎকার দিয়েছেন গ্লোবাল ওয়ার্মিং বা বিশ্বের ক্রমবর্ধমান উষ্ণতা নিয়ে। ডাঃ মতিনের ভাষায় - “বিশ্বের উষ্ণয়ান সম্পর্কে বাংলাদেশের জনগণের মনে দু’ধরণের প্রতিক্রিয়া রয়েছে বলে আমার মনে হয়: প্রথমতঃ, তারা খুবই ব্যথিত যে, পশ্চিমাবিশ্ব শেষ পর্যন্ত আমাদের মত দরিদ্র দেশের উপর এত মারাত্মক অমানবিক একটি বিপর্যয়ের সম্ভাবনা সৃষ্টি করে দিল যা আমাদের অস্তিত্বকেই অনিশ্চিত করে তুলতে পারে। এটি নিঃসন্দেহে বিভিন্নকালে বিশ্বব্যাপী দুর্বলের উপর সবলের ঐতিহ্যগত অত্যাচারেরই একটি আধুনিক অথচ কদর্যরূপ বই কিছু হতে পারে না। দ্বিতীয়তঃ, বাঁচা ও ভালভাবে বাঁচার চিরন্তন মানবিক আকাংখার স্বাভাবিক প্রয়াস ও সংগ্রামের ধারাবাহিকতায় আমাদের আরেকটি কষ্টের সাগর পারি দেয়ার জন্য মানুষ নিজেকে প্রস্তুত করার পাশাপাশি বিশ্বের উষ্ণতার কারণ প্রশমনে পশ্চিমা বিশ্বের জনসাধারণ ও সরকারসমূহের দায়িত্বশীল, অগ্রণী, দায়ভারবহনমূলক মনোভাব ও ভূমিকাও তারা কামনা করছে।” ... সাক্ষাৎকার নিয়েছেন পড়শী’র ড. ভজেন্দ্র বর্মন ও ড. সাবির মজুমদার
4504 বার পড়া হয়েছে
 

  কার্বন-শক্তি-জল এবং বিশ্বের উষ্ণতা

এই বসুন্ধরা আমাদের একান্ত আপন। আমাদের মতো সহস্র কোটি মানুষকে, কোটি কেটি প্রাণীকে, গাছ-গাছালীকে এই বসুন্ধরা দিয়েছে জন্ম, আশ্রয় ও জীবনভোগের অনাবিল আনন্দ। দিয়েছে এমন একটা পরিবেশ যা এই মহাবিশ্বে বিরল, বিষ্ময়করও বটে। যে অক্সিজেন ছাড়া জীবন অসম্ভব তা এই পৃথিবীর বাতাস ও জলে আছে পরিমিত পরিমান। যে কার্বন ছাড়া দৈহিক বৃদ্ধি ও ক্ষয়পূরণ হয় না তাও আছে পরিমিত পরিমান। যে জল ছাড়া জীবন অসম্ভব তা আছে পর্যাপ্ত। আর যে শক্তি ছাড়া জীবন, দেহের বিকাশ, সভ্যতার বিকাশ অসম্ভব, তাও আমরা এই বসুমাতার কাছেই নানাভাবে পাই, যদিও তা আসে আমাদের অত্যন্ত নির্ভরশীলতার প্রতীক সূর্য থেকে।
4998 বার পড়া হয়েছে
 

  গ্লোবাল ওয়ার্মিং নিয়ে কি হচ্ছে – নাগরিক কর্তব্য ও সরকারি ভাবনা

আজকাল গ্লোবাল ওয়ার্মিং নিয়ে বেশ মাথাব্যথা আমার। ভাবনা হয় আমাদের উত্তরসূরীদের জন্য। আরও ভাবনা হয় বাংলাদেশের উপকূলের তেত্রিশ মিলিয়ন মানুষের জন্য যারা এখন পর্যন্ত সাগরের লোনা জল ও নিচু জলাভূমির মাঝখানে আর যাদের ক্ষয়ক্ষতির কারণ হবে আমাদের সবার অদূরদর্শিতা এবং লাগামহীন আচরণ। আজকে পঁচিশে মার্চ। প্রবাসের ব্যস্ত জীবনের মধ্যে মনে পড়ে যায় আগামীকাল বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবস।
4721 বার পড়া হয়েছে
 

  বিশ্ব উষ্ণায়ন ও পশ্চিমবঙ্গ

প্রধানতঃ জীবাশ্মজনিত জ্বালানির ব্যাপক ব্যবহারের ফলে পৃথিবীর বায়ুমন্ডলে কার্বন-ডাই-অক্সাইডের পরিমাণ অতি দ্রুত বেড়ে চলেছে। এই বৃদ্ধির ফলে বিশ্বের তাপমাত্রাও যে বেড়ে চলেছে তা এখন সর্বজনবিদিত। বিশ্বের তাপমাত্রা বাড়ার সাথে সাথে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতারও দ্রুত বৃদ্ধি হচ্ছে। এই উচ্চতা বৃদ্ধিতে সমুদ্রের জলের উষ্ণতাজনিত সম্প্রসারণের ৪৫%, পৃথিবী-জোড়া হিমবাহের গলনের ২৫%, আন্টার্টিকার বরফের গলনের ২০% এবং গ্রীনল্যান্ডের বরফের গলনের প্রায় ১০% অবদান আছে। বিশ্বজোড়া উষ্ণায়নে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর মধ্যে ভারতবর্ষ ও বাংলাদেশ অন্যতম এবং তার মধ্যে ভারতের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ ও অন্যান্য উপকূলবর্তী রাজ্যগুলো বিশেষভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এই প্রবন্ধে বৈশ্বিক উষ্ণায়নের প্রভাব শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গে কি রকম হবে তা নিয়ে সংক্ষেপে আলোচনা করা হয়েছে।
7349 বার পড়া হয়েছে
 

  জলবায়ুর পরিবর্তন কি এবং কেন?

আজকাল অনেক শীতপ্রধান দেশেও শীতকালে সতেজ সবজি পাওয়া যাচ্ছে। এগুলো গ্রীষ্মকালে জন্মিয়ে শীততাপ নিয়ন্ত্রিত স্টোরেজ থেকে পরে আনা নয়। এগুলো বহুদূরের বিষুবীয় উষ্ণ অঞ্চলের কোন দেশে উৎপন্ন নয়। পক্ষান্তরে শীতকালেই স্থানীয়ভাবে গ্রীনহাউসে উষ্ণ ও আলোকিত ঘরে উৎপন্ন সবজি – একদম সতেজ। গ্রীনহাউস আমাদের পক্ষে এক ম্যাজিকের মতো কাজ করে।
10268 বার পড়া হয়েছে
 

এ সপ্তাহের জরীপ

প্রেসিডেন্ট ওবামা ঠিকমত দেশ চালা্চ্ছেন।

 
Code of Conduct | Advertisement Policy | Press Release | Hard Copy Archive
© Copyright 2001 Porshi. All rights reserved.