Home | About Us | Porshi Team | Porshi Patrons | Event Announcement | Contact Us
হোমপেজ পুরনো সংখ্যা: সূচীপত্র   ||    ৯ম বর্ষ ৯ম সংখ্যা পৌষ ১৪১৬ •  9th  year  9th  issue  Dec 2009 - Jan 2010  পুরনো সংখ্যা
মূল রচনাবলীঃ 
  প্রচ্ছদ : বিজয় দিবস ও মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিকথা

প্রচ্ছদশিল্পী ফরিদা জামান। অধ্যাপিকা ফরিদা জামান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন আর্টস ফ্যাকাল্টির ড্রয়িং ও পেইন্টিং বিভাগের চেয়ারপার্সন। তিনি ভারতের শান্তিনিকেতনের বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রী লাভ করেন। শিল্পী ফরিদা জামান বাংলাদেশে এবং দেশের বাইরে বহু একক এবং গ্রুপ প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ করেছেন এবং বহু পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন তার শিল্পকর্মের জন্য। প্রচ্ছদে ব্যবহৃত হয়েছে তার চিত্রকর্ম ‌জেনোসাইড – ক্যানভাসে এক্রাইলিকের কাজ।
3312 বার পড়া হয়েছে
 

  বিজয় দিবস ও মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিকথা

১৬ই ডিসেম্বর আমাদের বিজয় দিবস। ১৯৭১-এর রক্তক্ষয়ী দীর্ঘ নয় মাস যুদ্ধের পর বর্বর পাক-হানাদার বাহিনী আত্মসর্মপণ করতে বাধ্য হয় বাঙালির কাছে। আনুষ্ঠানিকভাবে ওরা পরাজয় স্বীকার করে নেয় ১৬ই ডিসেম্বর। বিজয়ের আনন্দে বাংলার আকাশ বাতাস মুখরিত হয়। নিজস্ব মাতৃভূমিরূপে বাংলাদেশকে পাই আমরা। …
4061 বার পড়া হয়েছে
 

  বিজয় দিবসঃ স্মৃতি–বিস্মৃতির মুক্তিযুদ্ধ

বিজয় দিবস বললেই স্মৃতি আমাকে তাড়া করে। মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি। মুক্তিযুদ্ধের গৌরবের, উত্তেজনার, বেদনার, কষ্টের স্মৃতি। কিন্তু হায় একদা মুক্তিযুদ্ধে যাদের সহযাত্রী হয়েছিলাম, মিছিলে সভায়, সংকটে হাতে হাত দিয়ে চলেছি, একান্ত যাত্রী পথের মাঝে কতজন যে হারিয়ে গেল এখন তাদের নাম মনে করতে পারিনা, এটাও ত কষ্টের। ষোলই ডিসেম্বর আমার জন্য তাই সাল তামামির দিন। নিজের মনের মুখোমুখি হয়ে ভাবতে চাই কারা গেল, কারা নেই, কিভাবে এখানে পৌঁছুলাম। …
3552 বার পড়া হয়েছে
 

  একাত্তরেরই মুক্তিযোদ্ধা

জলে-জঙ্গলে, অন্ধকারে বারুদ আর আগুনে ভরা লড়াইয়ের মাঠে জীবন বাজি রাখা সেই মুক্তিযোদ্ধাদের ঠিক পাশে আসলেই তো আমরা দাঁড়াতে পারিনি। আমরা, যারা একাত্তরে বিদেশে ছিলাম, এবং সেখানে থেকেই মুক্তিযুদ্ধে সাফল্যের জন্যে, বাংলাদেশ সম্ভব করার জন্যে যা পারা যায় করেছি, একথা মনে রাখি এবং ‘আমরাও মুক্তিযোদ্ধা’ সগৌরবে বলা যায় কিনা এ নিয়েও ভাবি। যদিও ‘প্রবাসী মুক্তিযোদ্ধা’ এ-রকম একটি পরিচয়ে কখনো কখনো চিহ্নিতও হয়েছি আমরা। তবুও বারবার মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা প্রস্তুতকালে আমাদের কথা কারো মনে পড়ে কিনা এমন সন্দেহ মন থেকে সরে না। বিশেষত, যখন দেখি, বাংলাদেশের সীমানার ঠিক বাইরে থেকে যাঁরা মুক্তিযুদ্ধের কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করেছেন, ঠিক লড়াইয়ের আসল ময়দানেও নয়, তাঁরা মুক্তিযোদ্ধা বলে বিবেচিত হন। তখন আমাদের দিকে নজর না- পরার কারণ ঠিক বুঝি না।
3203 বার পড়া হয়েছে
 

  ১৯৭১: ঘটনাপুঞ্জি

দীর্ঘ ৩২ বছরের মধ্যে শুধু সিকি শতাব্দই নয় পুরো একটি শতাব্দ যেমন কালপ্রবাহে গলধঃকরণ হয়ে, নতুন শতাব্দীতে গিয়ে পড়েছে তেমনই প্রবহমান ২য় সহস্রাব্দ ও দুস্তর ও ঘটনাবহুল পথ পাড়ি জমিয়ে ৩য়’র ঘরে এসে কালের যাত্রা শুরু করে দিয়েছে। এই সময়ের ভেতর বিশ্বের শতসহস্র নদীগুলির সঙ্গে বাংলাদেশের নদীগুলি দিয়েও যেমন বয়ে গেছে অনেক জল, তেমনই আকাশেও চলেছে ঘনকালো মেঘ তার দুর্যোগের ঘনঘটা। কখনও রাজনৈতিক, কখনও ষড়যন্ত্র আর চক্রান্তের। তখন থাকি আমি কলকাতায়। পার্ক সার্কাসে ৪ নম্বর সোহরাওয়ার্দি এভেনিউর চার তলার ফ্ল্যাট বাড়িতে যার মালিক ছিলেন দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জনের ঘনিষ্ট সহচর কলকাতা কর্পোরেশনের প্রথম মুসলমান নির্বাহী আবদুল রশীদ খান। …
3276 বার পড়া হয়েছে
 

  বিজয়ের দিন

১৬ই ডিসেম্বর। ভোর সাড়ে পাঁচটায় কাদের ভাই সার্কিট হাউসে পৌঁছুলেন। জেনারেল নাগরা সেখানে আগে থেকেই প্রস্তুত ছিলেন। ছয়টায় ময়মনসিংহ থেকে একটি ভারতীয় সামরিক হেলিকপ্টার এসে সার্কিট হাউসের সামনে অবতরণ করল। জেনারেল নাগরা ও কাদের ভাই হেলিকপ্টারে বসলেন। সাড়ে ছয়টায় হেলিকপ্টারটি কড্ডার মৌচাকে ব্রিগেডিয়ার ক্লের-এর অস্থায়ী সদর-দফতরে এসে অবতরণ করল। ব্রিগেডিয়ার ক্লের ওঁদেরকে অভ্যর্থনা জানিয়ে উত্তেজিতভাবে জানালেন যে পাকিস্তানি জেনারেল নিয়াজী খুব সম্ভবত আত্মসমর্পণ করবে। ওদের বেতারে পাকিস্তানিদের যে কথাবার্তা ধরা পড়েছে- তা থেকেই অনুমান করা হচ্ছে। এছাড়া সকাল থেকে পাকিস্তানিদের কোনো তৎপরতা নেই। ব্রিগেডিয়ার ক্লের আরও বললেন যে আমরা শত্রুর নাকের ডগায় এসে বসে আছি, কিন্তু ওদের কোনো তৎপরতা নেই। এটা একটি অস্বাভাবিক পরিস্থিতি। কিন্তু মীরপুরের দিকে ব্রিগেডিয়ার সানৎ সিং এর সাথে সারারাত যুদ্ধ হয়েছে। …
3479 বার পড়া হয়েছে
 

  বিজয় গাঁথা

... কবি কিশোর সুকান্তের ঠিকানা কবিতাটি অমর হয়ে আছে হেমন্ত মুখার্জীর কন্ঠে। অনেকেই শুনেছেন গানটি। এই গানে বর্ণিত 'জালালাবাদ' গ্রামটিতে ছিল 'স্বদেশী' আন্দোলনের বীর যোদ্বা- মাষ্টার দা' সূর্যসেনের আস্তানা। চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ থানার একটি গ্রাম। একেবারে অজ পাড়াগাঁ বলা যাবেনা। চট্টগ্রাম শহরের উপকন্ঠে, কিছু কিছু বিদ্যুতের সংযোগ তখনি ছিল। ‘৭১ এর ১৬ই ডিসেম্বরে জালালাবাদ গ্রামেই আমরা দেখলাম স্বাধীনতার প্রথম সকাল। '৭১ এর দুঃসহ দিনগুলিতে সারা বাংলাই ছিল আতংকগ্রস্থ। সুখনিদ্রা বলে কারোই কিছু ছিলনা। তবুও ঘুম আসে অনেক ক্লান্তির পরে। উত্তেজনায় টানটান স্নায়ু একসময় শিথীল হয়ে আসে মানুষ ঘুমিয়ে পড়ে। আবার জেগে ওঠে দুঃস্বপ্নের মধ্যে- কিন্তু সেদিনের সকালটা ছিল অন্যরকম প্রশান্তিতে ভরা। ..
3611 বার পড়া হয়েছে
 

  দুঃসহ সেই স্মৃতি

রায়েরবাজারের বধ্যভূমি থেকে যখন শিয়ালের ডাক কুকুরের কান্না ভেসে আসত মধ্যরাতে, তখন আমার বুকের ভেতরটা গুমরে গুমরে উঠত কান্নায়। আমি যেন রাতের অন্ধকার ভেদ করে দেখতে পেতাম শিয়াল কুকুরে ছিঁড়ে ছিঁড়ে খাচ্ছে মোস্তফার দেহটাকে। আমি চিৎকার করে কাঁদতে চাইতাম, কিন্তু পারতাম না। বালিশে মুখ গুঁজে রাতের পর রাত শুধু ফুঁপিয়ে ফুঁপিয়ে কেদেছি। আমার এই কান্না কেউ দেখেনি কেউ জানেনি। সমস্ত পৃথিবী যখন ঘুমে অচেতন আমি তখন জেগে বসে থেকেছি। প্রতীক্ষার প্রহর গুনেছি। যদি কখনও হঠাৎ এসে দরজায় ধাক্কা দেয় মোস্তফা। যদি বলে, আমি এসেছি দরজা খোল। …
3843 বার পড়া হয়েছে
 

  একজন মুক্তিযোদ্ধার স্মৃতিচারণ ও আক্ষেপ

১৯৭১ সনের মার্চ মাস – ৩৮ বৎসর পেড়িয়ে গেছে। সেতো অনেক দিন আগেকার কথা। তৎকালীন পূর্ব পাকিস্থানে তখন থমথম ভাব। গণভোটে বিজয়ী হয়েও বাঙালী নেতাদের কাছে পাকিস্থানী সামরিক শাসকরা ক্ষমতা হস্তান্তর করছিলো না! আমি তখন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলাম। রাজনৈতিক সভা ও মিছিলে যোগ দিলেও দেশের রাজনীতি নিয়ে খুব একটা মাথা ঘামাতাম না। ঐসব জায়গায় যেতাম শুধুমাত্র দেশে কি হচ্ছে তা জানার জন্য। ৭ই মার্চ ঢাকার পল্টন ময়দানে বিরাট একটি ঘোষণা দেয়া হলো। বিজয়ী আওয়ামী লীগ দলের নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান বললেন, বাংলাদেশে চলবে ‘মুক্তির সংগ্রাম’, ‘স্বাধীনতার সংগ্রাম’। বাঙালীদের দেশ হবে স্বাধীন বাংলাদেশ ! এরপর ঘূর্ণিঝড়ের আগে যেমন হয় সারা দেশে তেমনি গুমোট এক ভাব। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে চলে এলাম গ্রামের বাড়িতে। এলো ২৫ শে মার্চ। জেনারেল ইয়াহিয়া খাঁন সামরিক আইন ঘোষণা করলো। সামরিক শাসকদের কাছে তখন প্রতিটি বাঙালী পাকিস্তানের শত্রু! প্রচুর ধরপাকড় চললো। পাকিস্তান সেনাবাহিনী হত্যাকান্ড শুরু করে দিলো। সারা দেশে অত্যাচার-ব্যাভিচার শুরু হলো এবং তা চলতে থাকলো। এসবের বিরুদ্ধে সংগঠিতভাবে কোন প্রস্তুতি নেয়া হয় নি, তাই কারো কিছুই করার ছিল না। ২৬ শে মার্চে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণা করা হলো। পাকিস্তানীদের অত্যাচারের মাত্রা তখন বহুগুণে বাড়লো। দেশের প্রায় সকল মানুষ মূলতঃ খালি হাতে পাকিস্তানী সেনাবাহিনী এবং তাদের সহচরদের অপকর্মের প্রতিরোধ শুরু করলো। …
3211 বার পড়া হয়েছে
 

  একাত্তরের বিজয় আনন্দের সাথে অন্য কোন আনন্দের তুলনা চলেনা

একাত্তরের মধ্যভাগ আমার কর্মস্থল সিলেট-মেঘালয় সীমান্তে তামাবিলের পাশ্ববর্তী মেঘালয়ের ডাউকীতে। অনেকগুলো দায়িত্ব আমার ওপর। নাছাইন ইয়ুথ ক্যাম্পের রিক্রুটিং-এর দায়িত্ব, তামাবিলের পাশ্ববর্তী জাফলং, হাদারপার, সানকিভাংগা, সেংগ্রাম, বল্লা এসব মুক্ত এলাকা দেখাশুনা, অপারেশনে আহতদের শিলং হাসপাতালে পাঠানো, দেশের ভেতর থেকে মুক্তিবাহিনীতে যোগ দিতে আসাদের সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ এসব আরও কিছু। কিন্তু b‡f¤^‡i যৌথ বাহিনীর আক্রমণ শুরুর প্রাক্কালে সবকিছু গুছিয়ে ফেলতে হয়। আবার অনেক দায়িত্বের আর প্রয়োজন বা গুরুত্ব ফুরিয়ে যায়। তখন পুরোদমে যুদ্ধের প্রস্তুতি। ...
3145 বার পড়া হয়েছে
 

  আমার মুক্তিযুদ্ধ,আমার অহংকার

মাঝে মাঝে আমার খুব আক্ষেপ হয়, কেন আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধে আমি যোগ দিতে পারলাম না। আমার মোহন দাদা (বর্তমানে ক্রান্তি শিল্পী গোষ্ঠীর সভাপতি মাহবুবুল হায়দার মোহন) যখন যুদ্ধে চলে যান তখন কাজী জাফর ভাই অবশ্য বলেছিলেন, 'কিরনকে কেন যুদ্ধে পাঠিয়ে দিচ্ছোনা।’ কিন্তু আমার মা তার ছোট্ট ছেলেটিকে পাঠাতে কিছুতেই সাহস পাননি। …
3829 বার পড়া হয়েছে
 

  দোদেল বান্দা

জন্মস্থান হিসেবে আমি মুর্শিদাবাদের। এখন আমার বয়স পঁচাত্তর বছর।যখন বার বছরের ছিলাম তখনকার কথা দিয়ে শুরু করা যাক। …
3513 বার পড়া হয়েছে
 

  মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি মুক্তিযোদ্ধা আক্কু চৌধুরীর সাক্ষাৎকার


3766 বার পড়া হয়েছে
 

  মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক বই-এর বাছাইকৃত তালিকা

মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি মুফিদুল হক কর্তৃক প্রেরিত নির্বাচিত বইয়ের তালিকা।
4854 বার পড়া হয়েছে
 

  ডিজিটাল ফরম্যাটে আমাদের মুক্তিযুদ্ধ

বর্তমান সরকার দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে ডিজিটাল বাংলাদেশ শব্দটি সবচেয়ে বেশিবার উচ্চারিত হযেছে। এটি সরকারের একটি এজেন্ডা। ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধ যখন সংগঠিত হয়। সে সময় বাংলাদেশে তথ্যপ্রযুক্তির অবস্থান ছিলো বেশ দূর্বল। ফলে মুক্তিযুদ্ধের অনেক বীরত্বগাথা আমরা ¯^vaxbZv পরবর্তী প্রজন্মের কাছে সেভাবে তুলে ধরতে পারিনি। এখন অনেকে এসব ইতিহাস ডিজিটাল ফরম্যাটে সংরক্ষণ করার চেষ্টা করছেন। ...
4099 বার পড়া হয়েছে
 

এ সপ্তাহের জরীপ

প্রেসিডেন্ট ওবামা ঠিকমত দেশ চালা্চ্ছেন।

 
Code of Conduct | Advertisement Policy | Press Release | Hard Copy Archive
© Copyright 2001 Porshi. All rights reserved.