Home | About Us | Porshi Team | Porshi Patrons | Event Announcement | Contact Us
হোমপেজ পুরনো সংখ্যা: সূচীপত্র   ||    ৯ম বর্ষ ৭ম সংখ্যা কার্তিক ১৪১৬ •  9th  year  7th  issue  Oct-Nov  2009 পুরনো সংখ্যা
মূল রচনাবলীঃ 
  প্রচ্ছদ : প্রবাসে বাংলাদেশী সংগঠন

বর্তমান সংখ্যার প্রচ্ছদ শিল্পী নিউইয়র্ক প্রবাসী খুরশীদ আলম সেলিম। শিল্পীর "Image of Nature"–এর এই ছবিটি ক্যানভাসের উপর এক্রাইলিকের কাজ।
5223 বার পড়া হয়েছে
 

  অতিথি সম্পাদকদের কথা

উত্তর আমেরিকার বিভিন্ন শহরে বাস করছেন হাজার হাজার বাংলাদেশী। একটি সুন্দর ও নিরাপদ জীবনের হাতছানিতে অতলান্তিক অথবা প্রশান্ত মহাসাগর পাড়ি দিয়ে আজ তাদের আবাস পরভূমিতে। ভবিষ্যৎ প্রজন্ম বেড়ে উঠছে ভিন্ন সংস্কৃতি ভিন্ন খাদ্যাভাসে, প্রকাশ করছে নিজের মনের ভাব ইংরেজীতে, বাংলা তাদের কাছে ভিনদেশী ভাষা। এটাই স্বাভাবিক। তবু আমাদের মন চায় আমাদের সন্তানেরা জানুক তার শিকড় সম্বন্ধে, স্বাদ পাক নিজের সংস্কৃতির, ভাষার। প্রতিদিনের জীবনের প্রাত্যহিক কাজের পর ছুটির দিনে আমরাও চাই, বাঙালির প্রিয় সময় কাটানোর উপায়, “আড্ডা”র স্বাদ পেতে। বোধকরি প্রাণের এ সকল প্রয়োজন মেটাতেই প্রতিষ্ঠা হয়েছিল বাংলাদেশী সমাজের মানুষকে নিয়ে সংগঠন, যাতে সংগঠিত উপায়ে উদযাপন করা যায় বিভিন্ন পালা-পার্বন, জাতীয় দিবস ইত্যাদি। ... লিখেছেন সুবর্ণা খান ও জিয়াউল করিম লোটাস।
3630 বার পড়া হয়েছে
 

  প্রবাসে মূলস্রোতের রাজনীতি উত্তম

অন্যান্য জাতিদের তুলনায় আমরা বাঙালিরা আড্ডাপ্রিয় এবং সেটা মূলতঃ রাজনীতি বিষয়ে আড্ডা দিতে ভালোবাসি। পেশাগত বা পারিবারিক নানা কারণে অনেকে এই সবের প্রতি তেমন সময় দিতে না পারলেও সুযোগ পেলে আড্ডা ও রাজনীতি আমাদের বিনোদনের একটি অন্যতম মাধ্যম। আমাদের দারিদ্রতা এবং অলসতা দুটোই এর প্রধান কারণ বিশেষ করে সমাজের মধ্য বিত্ত, নিম্ন বিত্ত ও উচ্চ মধ্য বিত্ত কিংম্বা উঠতি মধ্য শ্রেনীর মাঝে। এ-ছাড়া রাজনীতিতে সমাজের মধ্য বিত্তের অগ্রণী ভূমিকার ইতিহাস তো আছেই। আর বিনোদনের জন্য আমরা রাজনৈতিক আড্ডায় উৎসাহি হবার কারণ, আমাদের বিনোদনের ব্যবস্থা সীমিত, যাও আছে সেটাও সমাজের বিরাট একটি অংশ মধ্যবিত্তদের অনেকেরই উপভোগ করার ক্ষমতার বাইরে। তৃতীয় একটি কারণ আমাদের রাজনৈতিক আড্ডায় ঝুঁকে পড়ার সেটা হচ্ছে মানুষ সহজেই অন্যের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চায়, চেষ্টা করে, সেটা উপভোগ করে আত্মতৃপ্তি অনুভব করে। রাজনীতিতে এটা সহজ উপায় অন্তত আমাদের কৃষ্টি ও সামাজিক সম্পর্কের সামগ্রিক কাঠামোয়। তাই আমরা দেশে থাকি কিংবা প্রবাসে সুযোগ পেলেই রাজনৈতিক আড্ডা এ সুখ থেকে নিজেদের বিচ্ছিন্ন রাখতে পারিনা। রাজনীতির আদর্শ হলো এটা “ত্যাগের” মাধ্যম। কালের বিবর্তনে রাজনীতি বিশ্বের সর্বত্রই হয়ে গেছে এখন ‘ভোগ’-এর মাধ্যম। ভোগ করতে কে না চায়। তাইতো রক্ষকও ভক্ষক হয়। রাজনীতির ব্যাপারে আমাদের উল্লেখিত সামাজিক প্রেক্ষাপট ও উৎসগুলি উপেক্ষা করার মতো নয়। ... লিখেছেন মাহমুদ রেজা চৌধুরী ।
3542 বার পড়া হয়েছে
 

  সংগঠনের হাল হকিকত

নাইন-এলেভেনের পর সমগ্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সর্বত্রই সতর্কতা ও সাবধানতা। তারপরও কোন কিছুই থেমে থাকেনা। যথা – নিয়মে ধীর গতিতে সচল হয় প্রায় সবকিছুই। প্রবাসী বাংলাদেশের অভিবাসীরাও গা ঝাড়া দিয়ে উঠে এবং যথা নিয়মে কমিউনিটির জন্য কার্যকলাপও শুরু হয়ে যায়। বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ও সামাজিক এবং আঞ্চলিক সংগঠন তাদের কর্মতৎপরতা চালাতে থাকে। ২০০২ সালের মাঝামাঝি বাংলাদেশের এক মহান মরহুম নেতাকে কেন্দ্র করে ২টি সংগঠন একটি স্কুলের অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠান করার জন্য যথানিয়মে স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছে ভাড়ার জন্য আবেদন করে। কিন্তু কোন সংগঠনই উক্ত অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠান করার অনুমতি পায়নি। কারণ ... লিখেছেন ফাহীম রেজা নূর
3805 বার পড়া হয়েছে
 

  আঞ্চলিক সংগঠনগুলোর কর্মকর্তাদের কিছু কথা

যুগ যুগ ধরে মানুষ ভাগ্যের অন্বেষণে পাড়ি জমিয়েছে বিদেশ বিভূইয়ে। অচেনা, অজানা প্রতিকূল পরিবেশে নিজেকে খাপ খাইয়ে নিতে হয়েছে অনেক। তারপরও স্বপ্নলোকের চাবির খোঁজে আজও ছুটে চলেছে পৃথিবীর এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে। বাঙালী সমাজে পরভূমিতে আপন বলতে বুঝায় সমাজের কাছের আর দশ জনকে। সুখে দুঃখে এক অপরের সাহায্যে আসবেন সবার এটাই কাম্য। সকলে মিলে পালন করা হবে বছরের বিশেষ বিশেষ দিন, তাতেই কত আনন্দ। এই লক্ষ্যকে সামনে রেখেই গড়ে উঠেছে বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। তারা তাদের নিজ নিজ ভূমিকায় বিভিন্ন ভাবে বাংলাদেশী সমাজে কাজ করে চলেছেন এই সুদূর প্রবাসে। ... লিখেছেন জিয়াউল করিম লোটাস এবং সুবর্ণা খান
4082 বার পড়া হয়েছে
 

  আমেরিকায় বাংলাদেশী পেশাজীবী সংগঠন

১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর বাংলাদেশী বাঙালিদের উত্তর আমেরিকাতে আসার ঢল নামে। এখন ধারণা করা হয় যে শুধুমাত্র যুক্তরাষ্ট্রেই প্রায় তিন লাখ বাংলাদেশী থাকেন। এর দশ শতাংশ অর্থাৎ প্রায় ৩০ হাজার বাংলাদেশী বিভিন্ন উচ্চ পেশায় নিয়োজিত আছেন। এ সকল পেশাজীবীর মধ্যে রয়েছেন শিক্ষক, ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, রসায়নবিদ, ফার্মাসিষ্ট, কৃষিবিদ, অর্থনীতিবিদ, পরিবেশবিদ, ব্যাংকার, বিনিয়োগকারী, ইত্যাদি। অর্থাৎ এমন কোন পেশা নেই যেখানে বাংলাদেশীরা নেই। তিরিশ হাজার বাংলাদেশী পেশাজীবী একটা বিশাল সংখ্যা। কাজেই এরা সংগঠিত হওয়ার চেষ্টা করবে এটাই স্বাভাবিক।... লিখেছেন সাবির মজুমদার।
3817 বার পড়া হয়েছে
 

  কয়েকটি সংগঠন পরিচিতি

ও আমার দেশের মাটি
তোমার পরে ঠেকাই মাথা
তোমাতে বিশ্বময়ির
(তোমাতে) বিশ্বমায়ের আঁচল পাতা। ...
বিশ্বমায়ের আঁচলে ঠাই নেয়া বঙ্গসম্তান তবু নিজের চারিদিকে বাংলা মায়ের ছোঁয়াই খোঁজে। তাই প্রবাসী বাংলাদেশীদের আয়োজনের অভাব নেই দেশের ও মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ টিকিয়ে রাখার। যুক্তরাষ্ট্রে প্রবাসীদের এত এত সংগঠন একশ পাতা ভরে লিখলেও শেষ হবে না। সাংস্কৃতিক সংগঠনের পাশাপাশি ছাত্র সংগঠন ও গোষ্ঠীর সংখ্যা ভুরি ভুরি। সময় ও সুবিধা বিবেচনা করে অল্প কয়েকটি সেবামূলক, গবেষণা প্রধান ও মানবাধিকার সংস্থার কথাই এ লেখায় রইলো। ... লিখেছেন জাকিয়া আফরিন।

4923 বার পড়া হয়েছে
 

  বাংলাদেশী সংগঠন : যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিমাঞ্চলে

বাঙালিরা সংগঠনপ্রিয় - একথা নতুন করে বলার অপেক্ষা রাখে না। দেশের মত বিদেশ-প্রবাসেও বাঙালিদের ক্ষেত্রে এ সত্যটি প্রমাণিত। যেখানেই একাধিক বাঙালির সম্মিলন ঘটেছে সেখানেই সামাজিক প্রয়োজনে কিংবা সাংস্কৃতিক, ধর্মীয়, পেশাগত অথবা নিছক রাজনৈতিক প্রয়োজনে বাঙালি সংগঠনের উন্মেষ ঘটেছে। এমনকি যেখানেই এ সমস্ত প্রয়োজনের একাধিক সংমিশ্রণ ঘটেছে, সেখানেই ঘটেছে কোন্দল, দলাদলি এবং ফলতঃ একাধিক সম-উদ্দেশ্যমূলক সংগঠনের উৎপত্তি। কোথায়ও কোথায়ও এ সংগঠনগুলোর নামও থেকেছে বস্ততঃ অভিন্ন, শুধুমাত্র রাষ্ট্রীয়ভাবে আইনগত নথীকরণের প্রয়োজনে নামের বেলায় ঘটেছে সামান্যতম হের-ফের। যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিমাঞ্চলীয় অঙ্গ-রাজ্যসমূহের বিভিন্ন শহরে সংগঠিত বাংলাদেশীদের সংগঠনগুলোর বর্তমান বৈশিষ্ট্য এবং সাংগঠনিক কর্মকান্ডের নিরপেক্ষ পর্যালোচনায় এই উপসংহার নির্দ্বিধায় টানা যায়।... লিখেছেন ইউনুস রাহী।
4112 বার পড়া হয়েছে
 

এ সপ্তাহের জরীপ

প্রেসিডেন্ট ওবামা ঠিকমত দেশ চালা্চ্ছেন।

 
Code of Conduct | Advertisement Policy | Press Release | Hard Copy Archive
© Copyright 2001 Porshi. All rights reserved.