Home | About Us | Porshi Team | Porshi Patrons | Event Announcement | Contact Us
হোমপেজ পুরনো সংখ্যা: সূচীপত্র  মূল রচনাবলীঃ  ||  ১০ম বর্ষ ৩য় সংখ্যা আষাঢ় ১৪১৭ •  10th  year  3rd  issue  Jun - Jul  2010 পুরনো সংখ্যা
নারীর ক্ষমতায়ন Download PDF version
 

নারীর ক্ষমতায়ন

 

নারীর ক্ষমতায়ন

হেলালী বেগম

 

"বিশ্বে যা কিছু মহান সৃষ্টি চির কল্যানকর, অর্ধেক তার করিয়াছে নারী, অর্ধেক তার নর।" আপাম জনসমাজের অর্ধেক নারী। তাই এ কথা নির্দিধা বলা যায় নারী মানব সমাজের একটা অন্যতম অংশ।  নারীর পরিচয় তাই কন্যা, বোন, মা ও স্ত্রী পরিচয়ের মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়। নারী আজ তার আপন পরিচয়ে পরিচিত হয়েছে। প্রতিষ্ঠিত করেছে তার আপন অধিকার।

স্রষ্টার সুন্দর সৃষ্টির মধ্যে শ্রেষ্ঠ মানুষ। প্রত্যেক মানুষকেই সৃষ্টিকর্তা একটা ক্ষমতা ও অধিকার দিয়ে পাঠিয়েছেন। তিনি পুরুষ এবং নারীকে সৃষ্টি করেছেন দৈহিক ও মানসিক পরিপূর্ণতা দিয়ে। এখানে নারীর ক্ষমতা ও যোগ্যতাকে খাটো করে দেখার কোন অধিকার কাউকেই দেয়া হয়নি। সুকৌশলি স্রষ্ঠা নারী ও পুরুষের দৈহিক গঠনের মধ্যে কিছু পার্থক্য রেখেছেন যাতে করে আলাদা করে চেনা যায় নারী ও পুরুষকে। সমগ্র সৃষ্টির মধ্যেই এভাবে দুই শ্রেনীকে চেনা যায় আর সৃষ্ঠি ধারাকে অব্যাহত রাখার জন্য নারী ও পুরুষের অবদান সমান। নারী ছাড়া পুরুষ অপূর্ণ। ইসলামে সর্বপ্রথম নারী পুরুষের সমান অধিকারের কথা বলা হয়েছে। ইসলামে নারীকে পুরুষের সমান মর্যাদা দেয়া হয়েছে। পৈত্রিক সম্পত্তির অধিকার, স্বামীর সম্পত্তিতে অধিকার এবং জীবনের সর্বক্ষেত্রে নারীর ক্ষমতা ও মর্যাদা স্বীকৃত।

বর্তমান অবস্থাঃ অতীত ইতিহাস থেকে জানা যায় নারী ছিল অবহেলিত, অনাদৃত এবং নিপিড়ীত। বর্তমানে নারী তার অধিকার এবং ক্ষমতা আদায় করে নিয়েছে নিজ যোগ্যতা ও ক্ষমতা দিয়ে। নারীর ক্ষমতা সম্পর্কে** বর্তমান বিশ্বে আর কোন দ্বিমত থাকার অবকাশ নেই; পুরুষ শাসিত সমাজে নারী সমাজের ক্ষমতার মূল্যায়ন হয়নি বরং অবমূল্যায়ন হয়েছে। বর্তমানে যে দূর্জয় চালিকাশক্তি অন্তরালবর্তিনী, অসূর্যস্পর্শ নারীকে অন্ধকার পাষানপুরী থেকে মুক্তি দিয়েছে তা হলো আধুনিক শিক্ষা। শিক্ষাই জাতির মেরুদন্ড এবং "জ্ঞান অর্জন প্রত্যেক নারী পুরুষের জন্য অবশ্য কর্তব্য" জ্ঞানীর জ্ঞান সহস্র বৎসরের এবাদতের চেয়ে উত্তম"। ইসলাম বলেছে এ মহাবাক্যদুটি। তাই আজকের নারী সমাজ আধুনিক শিক্ষায় জ্ঞান অর্জন করে পুরোপুরি নিজের যোগ্যতা এবং ক্ষমতা সম্পর্কে ওয়াকিবহাল। নিজের দেশ এবং বর্হিবিশ্বের দিকে তাকালেই আমরা দেখতে পাই নারী- পুরুষ পাশাপাশি কর্মরত, চিকিৎসা বিজ্ঞান, সমাজ বিজ্ঞান, শিক্ষগতা, রাষ্ট্রক্ষমতা কোথায় নেই নারীর পদচারনা। নারী গৃহের শান্তি ছায়ায় লালন করে স্বামী, সন্তান এবং পরিবার। একটি শিশুর জীবন স্পন্দন শুরু হয় নারীর নিভৃত ছত্রছায়ায়। এখানে নারীর দান, অবদান এটা সম্পূর্ন ঈশ্বর প্রদত্ত। জম্মের পূর্ব মূহুর্ত পর্যন্ত নারী তার সন্তানকে লালন করে আপন চিন্তা ও চেতনা দিয়ে। এখানে নারীর ক্ষমতা ও যোগ্যতার কোন সীমা-পরিসীমা নেই। পরবর্তীতে শিশুর জীবন, বাল্য, শৈশব, কৈশো, যৌবন সবটা ঘিরেই একজন নারীর অবদান। একজন পরিপূর্ন মানুষ হবার পেছনে যে অবদান তা একজন নারীর যোগ্যতার ক্ষমতায়ন। আর এই ক্ষমতায়ন আসে নারীর শিক্ষাগত যোগ্যতা থেকে। এক কথায় বলা যায়, জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত একজন নারীর যোগ্য ক্ষমতায়নের ফলেই গড়ে ওঠে একজন পরিপূর্ন মানুষ। ইংরেজীতে একটা কথা আছে - mother is the best teacher for her childএখানে একটি শিশুর যোগ্যতা এবং ক্ষমতার পরিপূর্ন বহিঃপ্রকাশের দাবীদার নারী। জীবনের সর্বক্ষেত্রে নারী তার কল্যানকর ভূমিকা পালন করেছে এবং করছে।

nakshi katha by surayaনেপোলিয়ান বলেছেন,"আমাকে একজন ভালো মা দাও, আমি তোমাকে একটি ভালো জাতি দেব"।  মানুষ নিজের ভাগ্যের স্থপতি। আর একজন মানুষ মায়ের ছত্রছায়ায় নিজের জীবনকে গড়ে তোলে সুন্দর করে। মায়ের ভালোবাসা কখনও নিঃশেষ হয় না। পিতা সন্তানের প্রতি বিমুখ হতে পারেন, কিন্তু মায়ের ভালবাসা সব কিছুর ভিতর দিয়ে সন্তানকে ঘিরে রাখে। একজন মাই পারেন সন্তানের জন্য তার সব কিছু বিলিয়ে দিতে।

একজন মহাপুরুষ, একজন লেখক, কবি, উপন্যাসিক, ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার শিক্ষক, একজন ডঃ ইউনুস এনারা সবাই এক একজন মায়ের সন্তান। সুতারাং অতি সহজেই বলা চলে একজন মা না হলে কারো অস্তিত্বই থাকতো না।

কাজেই নারীর ক্ষমতায়নে দ্বিমতের কোন অবকাশ নেই।



হেলালী বেগম : সংস্কৃতিসেবী ও গৃহিণী।

 

সিলিকন ভ্যালী, ক্যালিফোর্নিয়া

জুন ১৫, ২০১০

 

মন্তব্য:
এ সপ্তাহের জরীপ

প্রেসিডেন্ট ওবামা ঠিকমত দেশ চালা্চ্ছেন।

 
Code of Conduct | Advertisement Policy | Press Release | Hard Copy Archive
© Copyright 2001 Porshi. All rights reserved.