Home | About Us | Porshi Team | Porshi Patrons | Event Announcement | Contact Us
হোমপেজ পুরনো সংখ্যা: সূচীপত্র  কৌতুক  ||  ১০ম বর্ষ ২য় সংখ্যা জ্যৈষ্ঠ ১৪১৭ •  10th  year  2nd  issue  May - Jun  2010 পুরনো সংখ্যা
কৌতুক Download PDF version
 

কৌতুক

১.

কিছুই করেনা ছেলেটি বি. এ ফেল করে বাড়ীতে বসে থাকে। কোন চাকুরীর চেষ্টাও করেনা জিজ্ঞেস করলে বলে,চাকুরী কি অত সোজা! কমপক্ষে এম.. পাশ লাগে এবং সেই সাথে দরকার হয় ধরাধরীর লোক। এই ভাবে কিছুদিন যাবার পর বাবা একদিন ডেকে ছেলেটিকে বললো- তুই বরং আর্মিতে ঢোকার চেষ্টা কর। শুনলাম এখন আর্মিতে লোক নিচ্ছে। পালবাবুদের মাঠে নাকি অফিস বসেছে,সেখানেই সরাসরী ভর্ত্তি করে নিচ্ছে। বাবার কথামত পরের দিন সকালে তৈরি হয়ে ছেলেটি গেল সেই পালবাবুদের মাঠে লোকজন লাইনে দাড়িয়ে আছে সেখানে । সেও একটা লাইনে দাড়ালো। এক এক করে এক সময় তার পালা আসলোতার নাম ঠিকানা,লেখা পড়া,বয়স ইত্যাদি লিখে নিয়ে তাকে অন্য একটি লাইনে দাঁড়াতে বললো। তারপর শুরু হলো প্রশিক্ষণ। অন্য একজন সুবেদার সাহেব এসে সবাইকে সোজা হয়ে দাড়াতে বললো। শুরু হলো ডান বাম,ডান বাম.. ..। তারপর বললো-সামনে চলো,বাঁয়ে ঘোর,ডানে ঘোর, জোরে চলো,পিছনে ঘোর ইত্যাদি আদেশ এবং তা পালন চলছে। বেশক্ষণ চলছে প্রশিক্ষ,সবাই প্রায় ঘেমে উঠেছে। হঠাৎ দেখা গেল ছেলেটি লাইন থেকে বেরিয়ে আসলো এবং এক জায়গায় দাড়িয়ে গেল। অন্যেরা নির্দেশ মত চলতে লাগলো। সুবেদার সাহেব দড় দিয়ে ছেলেটির কাছে গিয়ে জিজ্ঞেস করলো- কি হয়েছে তোমার, লাইন থেকে বেরিয়ে আসলে কেন? ছেলেটি কিছুটা বিরক্তির স্বরে বললো- কি করবো স্যার, আপনি তো মন ঠিক করতে পারছেন না। একবার বলছেন বায়ে যাও,একবার বলছেন ডানে যাও। আপনি আগে মন ঠিক করেন কোন দিকে যেতে হবে,আমি সেই দিকে যাবো।
২.

ইমিগ্রেশন নিয়ে লন্ডন যাচ্ছে এক বাংলাদেশী পরিবার। জিনিষ পত্র ছাড়াও ইজ্জত বাড়ানোর জন্য সংগে তাদের বেড়ালটাও নিয়েছে। আগে থেকে ঠিক করা লন্ডনের বাঙ্গালী পাড়ার একটা বাসাতে তারা গিয়ে উঠলো। জিনিষ পত্র নামানো উঠানো চলছে এই ফাঁকে বিড়ালটি গেটের বাইরে এসে উঁকিঝুকি দিচ্ছে। রাস্তার উল্টোদিকের মোড়ে লন্ডনের স্থায়ী কতগুলো বিড়াল আড্ডা দিচ্ছিলো। এই বাঙ্গালী বিড়াটাকে দেখে তাদের একজন তাকে ধমক দিয়ে ভেতরে যেতে বললো। কিন্তু বাঙ্গালী বিড়াল তো অত সহজে ভিতরে যাবার নয়। সে বললো- "আমাদের বাড়ীর সামনে আমি দাড়াতে পারবো না কেন? তাছাড়া রাস্তা তো সরকারী, আমি সেখানে ঘোরাফেরা করতে পারি।" লন্ডনী বিড়ালের একজন বললো- "ও সব আইনের কথা এখানে চলবেনা। তোমার যা বলা হচ্ছে তাই করো নইলে ঘাড় মটকে দেব।" লন্ডনী বড় বড় বিড়াগুলোকে দেখে সে কিছুটা ঘাবড়ে গিয়ে বললো- "তা হলে কি আমি কোনদিনই বাড়ীর বাইরে আসতে পারবো না?" পারবে- উত্তর দিল একজন লন্ডনী বিড়াল, তবে তার আগে তোমাকে আমাদের একজনের সাথে লড়া করতে হবে। যদি জেত,তবে আমদের দলের হয়ে যাবে। আমাদের ওস্তাদ তোমাকে বর করে নেবে,তখন তুমি সব জায়গায় ঘোরা পেরা করতে পারবে

এক,দুই,তিন- দুজন দুজনের উপর লাফিয়ে পড়লো এবং কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই ছোট খাটো বাঙ্গালী বিড়ালটি লন্ডনী বিড়ালকে মাটিতে শুইয়ে দিলো। বাঙ্গালী বিড়ালের জয় হলো এবং লন্ডনী বিড়াল সরদার তাকে দলের সদস্য করে নিল। মিলমিশ হয়ে যাবার পর লন্ডনী বিড়ালের একজন বাঙ্গালী বিড়ালের কাছে এসে কানে কানে জিজ্ঞেস করলো- "আচ্ছা ভাই,এই ছোট খাটো আপনি কি করে আমাদের পালোয়ানকে এত সহজে হারালেন।" বাঙ্গালী বিড়াল তখন বললো "আসলে আমি তো বাঘ,না খেতে পেয়ে বেড়ালের মত হয়ে গেছি।"

ওয়ালিউল ইসলাম,

রোজভিল, ক্যালিফোর্নিয়া।

 

মন্তব্য:
Robert Gonsalves   May 26, 2010
Golpo dutow haashsha rawshe voropur. Thank you.
এ সপ্তাহের জরীপ

প্রেসিডেন্ট ওবামা ঠিকমত দেশ চালা্চ্ছেন।

 
Code of Conduct | Advertisement Policy | Press Release | Hard Copy Archive
© Copyright 2001 Porshi. All rights reserved.