Home | About Us | Porshi Team | Porshi Patrons | Event Announcement | Contact Us
হোমপেজ পুরনো সংখ্যা: সূচীপত্র  সম্পাদকীয়  ||  ৯ম বর্ষ ১২তম সংখ্যা চৈত্র ১৪১৬ •  9th  year  12th  issue  Mar - Apr  2010 পুরনো সংখ্যা
পার্বত্য চট্টগ্রামে বাঙালিদের আগ্রাসন Download PDF version
 

পার্বত্য চট্টগ্রামে বাঙালিদের আগ্রাসন

 

আমরা কি আদৌ কখনো সভ্য হবো? আমরা যদি ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ থেকে কিছু শিখে থাকি কিংবা ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন থেকে কিছু দেখে থাকি, তাহলে কি আমাদের এতোদিনে বুঝা উচিৎ নয় যে বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ সংখ্যালঘুদের রক্ষা করার পবিত্র দায়িত্ব আমাদের সংখ্যাগুরুদের? আমরা কি সেটা করি? যদি করেই থাকি, তাহলে স্বাধীনতার চার দশক পরেও কেন এ জাতীয় বর্বরতার ঘটনা আমরা পার্বত্য চট্টগ্রামের পাহাড়ীদের উপর ঘটাচ্ছি অহরহ!

ষাটের দশকের গোড়ার দিকে পাকিস্তানের তৎকালীন সামরিক শাসক জেনারেল আইয়ুব খান বিদ্যুতের জন্য কাপ্তাই লেক তৈরী করে হাজার হাজার পাহাড়ীদের উচ্ছেদ করেছিলেন তাদের পৈত্রিক বাস্তুভিটা থেকে। সেখান থেকেই উৎপত্তি আজকের পাহাড়িয়াদের বিচ্ছিন্নতাবাদী সশস্ত্র সংগঠন শান্তিবাহিনীর।  তখন শান্তিবাহিনী পাকিস্তানের সাথে থাকতে চায়নি আমাদের মতই পাকিস্তান থেকে এমনকি পূর্ব পাকিস্তান থেকেও আলাদা হতে চেয়েছিল। আমরা অর্থাৎ পাকিস্তানীরা তখন নির্দয়ভাবে তাদেরকে নির্যাতন আর নিষ্পেষণের যাঁতাকলে আটকে রেখেছিলাম ওদরেকে করেছি নিজ ঘরে পরবাসী, যেমনটি আমরা ছিলাম একাত্তরে।

বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর পাহাড়ীদের আবারো আশাভঙ্গ হলো। বিশেষ করে ১৯৭৫ সালের রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের পর বাংলাদেশের তৎকালীন সামরিক শাসক জেনারেল জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বে আবারো নেমে এলো বাঙালিদের খড়গহস্ত এবার সংগঠিত সামরিক বাহিনী দিয়ে। শুধু তাই নয়, অনেক ক্ষেত্রেই সংগঠিতভবে ঢালুর বাঙালিরা সঙ্ঘবদ্ধভাবে এসে বসতি স্থাপন করতে শুরু করে। আমরা যেন ইতিহাসকে সাক্ষী রেখেই ইতিহাস গড়তে নামলাম নিজভূমেই চেঙ্গিস খান আর আইয়ুব খান হয়ে!

গত চার দশকে বাংলাদেশে বিভিন্ন সরকার পরিবর্তন হলেও অত্যাচার-অবিচার পাহাড়ীদের উপর কম-বেশী লেগেই আছে। মাঝে মাঝে শান্তির ললিতবাণী নেমে আসছে দেশের রাজধনী ঢাকা থেকে কিংবা জাতিসঙ্ঘের সদর দফতর নিউ ইয়র্ক থেকে। শেখ হাসিনা তাঁর আগের টার্মের (১৯৯৬-২০০১) সরকারে থাকাকালীন শান্তিবাহিনী তথা পাহাড়ীদের সাথে শান্তি চুক্তি করে ঘরে-বাইরে প্রশংসিত হয়েছিলেন। কিন্তু চুক্তির বাস্তবায়ন করতে ব্যর্থ হয়েছেন। এবার দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় এসে শেখ হাসিনার আওয়ামী লীগ সরকার কিছুদিনের মধ্যেই পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে বাংলাদেশের যুদ্ধরত নিয়মিত সৈন্যবাহিনীকে প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

নিয়মিত সেনাবাহিনী প্রত্যাহার করে শেখ হাসিনা এবং তাঁর আওয়ামী লীগ সরকার আরেকটু সাধুবাদ পাওয়ার দাবীদার। কিন্তু এ সরকার নিদারূণভাবে ব্যর্থ হয়েছে ফেলে আসা পাহাড়ী ও বাঙালিদের জানমালের নিরাপত্তা দিতে। পরিকল্পনা ও নিরাপত্তার অনুপস্থিতিতে যা হবার তাই হয়েছে দখলদার বাঙালিদের সাথে আদি পাহাড়ীদের শুরু হয়েছে পরিকল্পিত ও অপরিকল্পিত সংঘর্ষ। অহরহই মারা যাচ্ছে দুপক্ষের লোকজন আবাল-বৃদ্ধ-বণিতা।

পার্বত্য চট্টগ্রামের সাম্প্রতিক বাঙালি-পাহাড়ী সংঘর্ষ আধুনিককালের মধ্যপ্রাচ্য স্টাইলের বর্বরতাকেও হার মানিয়েছে। বাঙালিরা প্রায় হাজার খানেক পাহাড়ীদের ঘরবাড়ী পুড়িয়ে কয়েকটি জনপদ শ্মশান বানিয়েছে। স্বাভাবিক জীবনযাত্রার লেশমাত্রও সেখানে নেই। আছে শুধু সন্ত্রাস এবং সম্ভবতঃ দুপক্ষই এতে কমবেশী দায়ী। ইতিহাসের ধারাপাতে আমরা হয়তো স্থানীয় পাহাড়ী ও দখলদার বাঙালিদের সমানভাবে দায়ী করার স্পর্ধা দেখাতে পারি। কিন্তু একবার ইতিহাস থেকে শিক্ষা নিয়ে বুকে হাত দিয়ে বলুন ত পাহাড়ীদের দোষ দেয়ার কি কোন উপায় কিংবা সুযোগ আছে এক্ষেত্রে?

  পার্বত্য চট্টগ্রামের সাত দশকের সমস্যাকে কোন অবস্থাতেই স্থানীয় কিংবা আঞ্চলিক সমস্যা হিসাবে দেখা উচিৎ নয়। এটা অবশ্যই আমাদের জাতীয় সমস্যা যেমনটি পূর্ব পাকিস্তানের সমস্যা তৎকালীন পাকিস্তানে কোন অবস্থাতেই আঞ্চলিক সমস্যা ছিল না। পাকিস্তানী শাসকরা সে ভুলটা করেছিলেন বলেই ১৯৭১ সালে স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়। জাতি হিসাবে আমরা যদি ইতিহাস থেকে সে শিক্ষাটা নিতে ভুল করি তাহলে পার্বত্য চট্টগ্রাম শুধু আরো অশান্তই হবে না, বাইরের শক্তিগুলোও এতে ক্রমান্বয়ে জড়িয়ে পড়বে আমরা সেটা পছন্দ করি আর নাই করি।

আসুন ইতিহাস থেকে শিক্ষা নিই। নিজের অর্জনের জন্য একাধারে নিজেকে প্রশংসা ও ধিক্কার দিই। আমাদের চাইতে ছোট ছোট জাতিসত্ত্বাগুলোকে সমানভাবে সম্মান দেখাই। তাতে করে আমাদের জাতীয় সম্মান বাড়বে বৈ কমবে না। মনে রাখবেন বিভিন্ন জাতির এবং ধর্মের সহাবস্থান আমাদের সবার জীবনকে করে সমৃদ্ধ, জীবনমূখী এবং সর্বোপরি করে আন্তর্জাতিক পল্লীর উন্নত মানুষ।

 

সাবির মজুমদার

সিলিকন ভ্যালী, ক্যালিফোর্নিয়া

 

মার্চ ১৮, ২০১০

 

মন্তব্য:
জনারণ্য   April 21, 2010
ইতিহাসের অন্য অংশটা কি জানালে ভাল হতো।
Leo   April 17, 2010
Making comments are very easy staying luxurious city in abroad... You should read all the histories written about Bangladesh delta, from past till present..
এ সপ্তাহের জরীপ

প্রেসিডেন্ট ওবামা ঠিকমত দেশ চালা্চ্ছেন।

 
Code of Conduct | Advertisement Policy | Press Release | Hard Copy Archive
© Copyright 2001 Porshi. All rights reserved.