Home | About Us | Porshi Team | Porshi Patrons | Event Announcement | Contact Us
হোমপেজ পুরনো সংখ্যা: সূচীপত্র  প্রযুক্তি বন্ধন  ||  ৯ম বর্ষ ৭ম সংখ্যা কার্তিক ১৪১৬ •  9th  year  7th  issue  Oct-Nov  2009 পুরনো সংখ্যা
জলবায়ু পরিবর্তন বন্ধ কর, বাংলাদেশ রক্ষা কর – এই স্লোগানে বেনের বিশ্বব্যাপী কর্মসূচী Download PDF version
 

প্রযুক্তি বন্ধন

 

জলবায়ু পরিবর্তন বন্ধ কর, বাংলাদেশ রক্ষা কর এই স্লোগানে বেনের বিশ্বব্যাপী কর্মসূচী

 

পড়শী প্রতিনিধি

 

জাতিসঙ্ঘের সামনে বেনের সমাবেশ

 

            বাংলাদেশের জন্য জলবায়ু পরিবর্তন-সৃষ্ট দুর্যোগের প্রতি বিশ্ববাসীর দৃষ্টি আকর্ষণ করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ পরিবেশ নেটওয়ার্ক (বেন) গত শুক্রবার ১৮ই সেপ্টেম্বর এক বিশ্বব্যাপী কর্মসূচীর আয়োজন করে। ঐতিহাসিক এই কর্মসূচীর অংশ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ-ইয়র্ক, অস্ট্রেলিয়ার কেনবেরা ও সিডনী, জাপানের কিতাকিউসু, ও পৃথিবীর বিভিন্ন শহরে এবং বাংলাদেশের অভ্যন্তরে জমায়েত অনুষ্ঠিত হয়। জলবায়ু পরিবর্তন বন্ধ কর, বাংলাদেশ রক্ষা কর! স্লোগানের ভিত্তিতে অনুষ্ঠিত এইসব জমায়েতের পক্ষ থেকে বাংলাদেশের দৃষ্টিকোণ থেকে জলবায়ু পরিবর্তন সম্পর্কিত বিশ্লেষণ ও দাবী সম্বলিত একটি স্মারকলিপি জাতিসঙ্ঘের মহাসচিব, জনাব বান কিমুনের নিকট প্রেরণ করা হয়।

 

জাতিসঙ্ঘের সেক্রেটারিয়েট বিল্ডিং এর সামনে বেনের সমাবেশ

নিউ ইয়র্কঃ

 

জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক বিশ্বব্যাপী কর্মসূচীর অংশ হিসেবে বাংলাদেশ পরিবেশ নেটওয়ার্ক ও বাংলাদেশ সোসাইটি, নিউ ইয়র্ক ইনক-র উদ্যোগে এবং নিউ ইয়র্ক ও পার্শ্ববর্তী এলাকার বিভিন্ন বাংলাদেশী সংগঠনের সহযোগে জাতিসঙ্ঘের নিউ ইয়র্কস্থ সদর দফতর প্রাঙ্গণের রালফ বুঞ্চ পার্কে বাংলাদেশীদের একটি গুরুত্বপূর্ণ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

 

নিউ ইয়র্কস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল শামসুল হক বক্তব্য রাখছেন

 

সাড়ে নয়টায় জাতিসংঘের মহাসচিবের সমীপে লিখিত একটি স্মারকলিপি প্রদানের মাধ্যমে এই সমাবেশের কার্যক্রম শুরু হয়। মহাসচিবের পক্ষে জাতিসংঘের স্থায়ী উন্নয়ন বিভাগের পরিচালক ডঃ তারিক বানুরী এই স্মারকলিপি গ্রহণ করেন। ডঃ বানুরী স্মারকলিপির বক্তব্যের সাথে একমত পোষণ করেন ও আশা ব্যক্ত করেন যে, বাংলাদেশ সরকারও আগামী ২২শে সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিতব্য জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক শীর্ষ বৈঠকে অনুরূপ বক্তব্য পেশ করবে। তিনি জলবায়ু পরিবর্তন ইস্যু নিয়ে জাতিসংঘের আওতায় পরিচালিত কার্যক্রমের সর্বশেষ পরিস্থিতি সম্পর্কে বিস্তারিত অবহিত করেন। স্মারকলিপি প্রদানের এই অনুষ্ঠানে সমাবেশের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন তওফিক চৌধুরী, অধ্যাপক খালেকুজ্জামান, নুরুল কবীর, ডঃ সারওয়াত চৌধুরী, খোরশেদুল ইসলাম, সৈয়দ ফজলূর রহমান, অধ্যাপিকা হুসনে আরা, নিনি ওয়াহেদ, বদরুন্নাহার আহমেদ, ফাহিম রেজানুর, ও ডঃ নজরুল ইসলাম। এছাড়া ডঃ তারিক বানুরীর সহকর্মী জাতিসংঘের বেশ কয়েকজন কর্মকর্তাও এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

 

স্মারকলিপি প্রদান শেষে সকাল দশটা থেকে শুরু হয়ে বেলা দেড়টা পর্যন্ত দীর্ঘ সাড়ে তিন ঘন্টা ধরে সমাবেশের মনোগ্রাহী কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়। বেনের নিউ ইয়র্ক, নিউ জার্সী, ও কানেকটিকাট রাজ্যের সমন্বয়কারী এটর্নী তওফিক চৌধুরীর সভাপতিত্বে এই সমাবেশে প্রথমে পেনসেলভেনীয়ার লক হ্যাভেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক খালেকুজ্জামান জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বাংলাদেশ কিভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হবে তার ভয়াবহ চিত্র তুলে ধরেন, ও তা প্রতিরোধের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। ডঃ সারওয়াত চৌধুরী বেনের স্মারকলিপি উপস্থাপিত দাবীগুলো সম্পর্কে সকলকে অবহিত করেন।

 

জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ডঃ আব্দুল মোমেন বক্তব্য রাখছেন

 

সমাবেশের প্রতি সমর্থন ও সহমর্মীতা প্রকাশ করে যারা বক্তব্য রাখেন, তাদের মধ্যে ছিলেন সদ্য নিযুক্ত জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ডঃ আব্দুল মোমেন, নিউ ইয়র্কস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল শামসুল হক, যুক্তরাষ্ট্রের ডেমোক্রেটিক পার্টির স্থানীয় নেতা মোরশেদ আলম, ডঃ সারওয়াত চৌধুরী, লেখক বেলাল বেগ, সাংবাদিক মাহমুদ উল্লাহ, চিত্র পরিচালক কবীর আনোয়ার, সাংবাদিক, সমাজকর্মী ও সাংস্কৃতিক সংগঠক নিনি ওয়াহেদ, অধ্যাপিকা হুসনে আরা, মৌলভীবাজার সমিতির সভাপতি মিনহাজ আহমেদ, ভয়েস ফর জাস্টিসের প্রতিনিধি লুতফর চৌধুরী, শ্রোতার আসরের সভানেত্রী রানু ফেরদৌস, জাতিসংঘের আইন উপদেষ্টা সিরাজ চৌধুরী, প্রোগ্রসিভ ফোরামের সভাপতি খোরশেদুল ইসলাম, বেনের নিউ ইংল্যান্ড শাখার প্রতিনিধি নুরুল কবীর, সমাজ কর্মী ফাহিম রেজানুর, প্রকৌশলী খুরশীদ খন্দকার, ব্রুকলীনের সমাজকর্মী নজরুল ইসলাম, সমাজকর্মী সৈয়দ ফজলুর রহমান, প্রমুখ। সমাবেশের প্রতি বাংলাদেশ সোসাইটি, নিউ ইয়র্কের সাধারণ সম্পাদিকা রানা ফেরদৌসের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জাহিদুল ইসলাম।

 

এছাড়াও সমাবেশের সাথে সহমর্মীতা প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক আন্তর্জাতিক সংগঠনের প্রতিনিধি সুসান আলজনার ও বেন মারগোলিস এবং এটর্নী শাকীল কাজমী ও এটর্নী জন রীভস।

 

সমাবেশের আকর্ষণীয় অংশ ছিল বক্তৃতার বিভিন্ন পর্যায়ে অনুষ্ঠিত সাংস্কৃতিক পর্ব। এতে কবি জীবনানন্দের কবিতা আবৃত্তি করেন সুমন বসুনিয়া ও রেখা আহমেদ। কবি নজরুলের কবিতা আবৃত্তি করেন মুমু আনসারী। দেশপ্রেমিক সংগীত পরিবেশন করেন লিমন চৌধুরী।

 

লিমন চৌধুরী দেশাত্মবোধক গান পরিবেশন করছেন

 

সমাবেশের সমাপনী বক্তব্য রাখেন বেনের বিশ্ব-সমন্বয়কারী ডঃ নজরুল ইসলাম। তিনি জানান যে, বেনের উদ্যোগে একই দিনে বিশ্বের অন্যান্য দেশেও প্রবাসী বাংলাদেশীরা জলবায়ু পরিবর্তনের ইস্যুতে সমাবেশ অনুষ্ঠিত করছেন। এর মধ্যে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া, জাপান, কানাডা, ও অন্যান্য। বাংলাদেশেও প্রবাসীদের উদ্যোগের সমর্থনে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) কর্মসূচী হাতে নিয়েছে। বাংলাদেশের সমর্থনে সারা পৃথিবীব্যাপী একই দিনে কর্মসূচী পালনের এটাই প্রথম উদাহরণ। সেজন্য আজকের দিনটি একটি ঐতিহাসিক দিন হিসেবে ইতিহাসে চিহ্নিত হয়ে থাকবে। ডঃ নজরুল বলেন যে, ১৮ই সেপ্টেম্বরের এই কর্মসূচী একটি সংগ্রামের সূচনামাত্র। জলবায়ু পরিবর্তনের সমস্যা যেমন একদিনে সৃষ্ট হয় নি, তেমনি একটি সমাবেশের মধ্য দিয়েই এই সমস্যার সমাধান হবে না। বাংলাদেশীদের একটি প্রল্লম্বিত সংগ্রামে নিয়োজিত হতে হবে। এই সংগ্রামে প্রবাসী ও স্ববাসী বাংলাদেশীদের যৌথভাবে, সহযোগিতার মাধ্যমে এগিয়ে যেতে হবে। প্রবাসী বাংলাদেশীদের এই সংগ্রামে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখা সুযোগ রয়েছে। ডঃ নজরুল আশা প্রকাশ করেন যে আগামীতে প্রবাসীরা আরও বিপুল সংখ্যায় এই সংগ্রামের কর্মসূচীতে যোগ দিবেন।

 


 

বেনের বিশ্ব-সমন্বয়কারী ডঃ নজরুল ইসলাম বক্তব্য রাখছেন



১৮-ই সেপ্টেম্বরের সমাবেশে যোগ দেয়ার জন্য তিনি সকলকে ধন্যবাদ জানান। বিশেষত যাদের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে এই সফল সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে, তাদের প্রতি তিনি সকলের পক্ষ থেকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। এই সমাবেশে অংশগ্রহণকারী শিল্পীদেরকেও তিনি বিশেষ ধন্যবাদ জানান।

 

অস্ট্রেলিয়াঃ

 

বেন সিডনী মিছিল

 

জলবায়ু পরিবর্তনের ইস্যুতে বেন আয়োজিত বিশ্বব্যাপী কর্মসূচীর অংশ হিসেবে পৃথিবীর অন্যান্য দেশেও জমায়েত অনুষ্ঠিত হয়। তার মধ্যে অস্ট্রেলিয়ায় রাজধানী কেনবেরা ও সিডনী উভয় শহরেই কর্মসুচি পালিত হয়। বেন-অস্ট্রেলিয়ার সমন্বয়কারী কামরুল খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কেনবেরায় জমায়েতে বাংলাদেশীরা ছাড়াও অস্ট্রেলিয়ার অনেক পরিবেশবাদী ও জনপ্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। অস্ট্রেলিয়ার রাজধানী এলাকার আইনসভার স্পীকার শেইন রেটেনবারি ও সদস্যা কেরোলিন লেকটিউর এই জমায়েতের সাথে সহমর্মিতা প্রকাশ করে বক্তৃতা করেন। অন্য যারা বক্তব্য রাখেন, তাদের মধ্যে ছিলেন ডঃ মইনউদ্দিন, ডঃ কামালউদ্দিন, ডঃ আবেদ চৌধুরী, ডঃ অজয় কর, ডঃ ময়জুর রহমান, লেখিকা আইভি রহমান, আনামুল হক, প্রমুখ। জমায়েত শেষে জাতিসংঘের স্থানীয় অফিসে বেনের স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। পরবর্তীতে কেনবেরায় অবস্থিত বাংলাদেশের দূতাবাসে একটি অলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়, এবং বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের নিকট বেনের স্মারকলিপির কপি দেয়া হয়।

 

কামরুল খানের সভাপতিত্বে ক্যানবেরায় জমায়েত

সিডনী শহরের সমাবেশের শুরুতে অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে বর্ষীয়ান বাংলাদেশী জনাব নজরুল ইসলাম জলবায়ু পরিবর্তনের উপর বক্তব্য রাখেন। বেনের সিডনী শাখার সমন্বয়কারী ডঃ স্বপন পাল সমাবেশের পটভূমি ও উদ্দেশ্য ব্যাখ্যা করেন এবং বেনের স্মারকলিপিতে উপস্থাপিত বিশ্লেষণ ও দাবীসমূহ তুলে ধরেন। সিডনী শহরের হাইড পার্কে অনুষ্ঠিত এই জমায়েত অনেকেরই দৃষ্টি আকর্ষণ করে। সমাবেশ শেষে জাতিসংঘের স্থানীয় অফিসে বেনের স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

 

 

এছাড়া গত ১০-১২ সেপ্টেম্বর, ক্যানবেরায় সুইচ টু গ্রীন এক্সপো নামক পরিবেশবাদী এক প্রদর্শনীতে বেন অস্ট্রেলিয়া সাফল্যের সাথে অংশগ্রহণ করে। 

 


 

 


 

 জাপানঃ

 

জাপানের কিতাকিউসু শহরেও বেন-জাপান শাখার উদ্যোগে সভা অনুষ্ঠিত হয়। ডঃ আতিক আহাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই সভায় স্থানীয় বাংলাদেশীরা ও জাপানের পরিবেশবাদীরা যোগ দেন। সভা শেষে বেনের স্মারকলিপি জাতিসংঘের টোকিও অফিসে ফ্যাক্স মারফত প্রেরণ করা হয়। জাপানের অন্যান্য শহরে বসবাসকারী বাংলাদেশীরাও সাক্ষর অভিযানের মাধ্যমে বেনের এই স্মারকলিপির সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেন।

 

বাংলাদেশঃ

 

বাংলাদেশের ঢাকাতেও জলবায়ু ইস্যুতে প্রবাসী বাংলাদেশীদের বিশ্বব্যাপী কর্মসূচীর সমর্থনে জমায়েত অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) আয়োজিত এই জমায়েতে সভাপতিত্ব করেন ডঃ মোজাফফর আহমেদ। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাপা সাধারণ সম্পাদক ডঃ আব্দুল মতিন, যুগ্ম সম্পাদক প্রকৌশলী তাকসিম খান, প্রমুখ। জমায়েত শেষে বেনের স্মারকলিপি জাতিসংঘের ঢাকাস্থ অফিসে প্রদান করা হয়।

 

জলবায়ু পরিবর্তনের ইস্যু নিয়ে প্রবাসী বাংলাদেশীদের একটি শক্তিশালী আন্দোলন গড়ে তোলার একটি দীর্ঘমেয়াদী লক্ষ্য নিয়ে বেন অগ্রসর হচ্ছে। সকল দেশপ্রেমিক বাংলাদেশীদের এই আন্দোলনে যোগ দেয়ার জন্য বেন উদাত্ত আহ্বান জানাচ্ছে।

 

বিঃ দ্রঃ সভার ছবি ও ভিডিও-ক্লিপের জন্য যোগাযোগ করুনঃ s_n_islam@yahoo.com kamrul_k@hotmail.com অথবা kamrulk@gmail.com

 

 

 

 

মন্তব্য:
erewre   May 27, 2016
It's time to explore the exciting world of Ralph Lauren Polo . Here, you'll find a stunning display of quality and craftsmanship, for both men's and women's shoes. Whether it's seductive strappy sandals or classic men's loafers, each piece represents Ralph Lauren's commitment to individuality and elegance. You can go from day to night, Ralph Lauren Dresses or casual to desirably dressed, with the Ralph Lauren Collection. Ladies, start your day off with gladiator sandals and end with the exciting elegance of gold studded heels Ralph Lauren Short Sleeved Polos . Redefine your style with classic equestrian boots and uniquely coveted sneakers. Let's not forget the men. Whether you're styled in smooth suede loafers Ralph Lauren Shirts , or want to kick back in terrifically tasseled boat shoes, the Ralph Lauren Collection has the versatility you desire. Ralph Lauren has always stood for providing quality products Ralph Lauren Sweaters , and the Ralph Lauren Collection invites you to take part in their wonderful world of glamorous excitement, classic designs, and pieces you'll covet forever!
kamrul Ahn Kha   November 9, 2009
Thanks porshi management for for supporting our cause and sharing our activity with others.We need to work on this issue home and abroad hnd in hand. We will be in touch and keep posting what we are doing togther along with our community. Wwe wil reqest our reader to join with our cause and do your part wh ever yo can. Kamrul Ahsan Khan kamrulk@gmail.com
এ সপ্তাহের জরীপ

প্রেসিডেন্ট ওবামা ঠিকমত দেশ চালা্চ্ছেন।

 
Code of Conduct | Advertisement Policy | Press Release | Hard Copy Archive
© Copyright 2001 Porshi. All rights reserved.